জান্নাত পাবার ৪ টি সহজ কাজ

প্রবন্ধটি পড়া হলে শেয়ার করতে ভুলবেন না।
পরম করুণাময় মহান আল্লাহর নামে আরম্ভ করছি।
আমরা সবাই জান্নাতে যেতে চাই। এই জান্নাতে যাওয়ার ৪টি সহজ আমল আছে। আমি নিজেও তা আমল করার চেষ্টা করি এবং আমার প্রিয় পাঠক ভাই-বোনেরাও তা আমল করার চেষ্টা করবেন এবং এ কথাগুলো অন্যদেরকেও জানিয়ে দিবেন। নিজের পরিবারের সদস্য, বন্ধু-বান্ধব ও আত্মীয়-স্বজনের সাথে অবশ্যই শেয়ার করবেন। 

যদি পারেন তাহলে আমার এই লেখা ইমেইলে, ফেইসবুকে, টূইটারে কপি করে দিবেন। এটা পছন্দ হলে প্রিন্ট করে অন্যদেরকে পড়তে দিবেন। আপনার দাওয়াতে পেয়ে যদি কেউ জান্নাতে যেতে পারেন, সেই অসিলায় আল্লাহ পাক আপনাকেও জান্নাতে দিবেন।

১- মুখে ইমানের কালেমা ও শাহাদত বেশী বেশী করে উচ্চারণ করা। যারা আন্তরিকভাবে এই আমল সবসময় করেন তারা জান্নাতে যাওয়ার যোগ্য হিসাবে গড়ে ওঠেন।

২- যত বেশী সম্ভব তওবা ও ইস্তেগফার করা। কোরানে আছেঃ আল্লাহ তাদেরকে শাস্তি দিবেন না যতক্ষণ তারা ইস্তেগফার করতে থাকে।
” وَمَا كَانَ اللّهُ مُعَذِّبَهُمْ وَهُمْ يَسْتَغْفِرُونَ”

৩- আল্লাহ পাকের কাছে জান্নাতের আবদার করা;
এবং

৪- আল্লাহ পাকের কাছে জাহান্নাম থেকে বাচবার দোয়া করা
৩ ও ৪ নং আমলের ব্যাপারে একটা হাদিস এখানে উল্লেখ করছিঃ
حديث أنس بن مالك رضي الله عنه الثابت في صحيحي الترمذي وابن ماجة ) أن النبي صلى الله عليه وسلم قال : من سأل الله الجنة ثلاث مرات قالت الجنة اللهم أدخله الجنة ومن استجار من النار ثلاث مرات قالت النار اللهم أجره من النار
সহীহ তিরমজী ও ইবনে মাজাতে আনাস বিন মালেক (রা) থেকে বর্ণিত হাদীসে রাসূলুল্লাহ (স) বলেনঃ যে আল্লাহর কাছে ৩ বার জান্নাত চায় তাকে নিয়ে জান্নাত বলেঃ ও আল্লাহ তাকে তুমি জান্নাতে নিয়ে আসো। আর যে তিনবার জাহান্নাম থেকে মুক্তি চায়, তার ব্যাপারে জাহান্নাম বলেঃ ও আল্লাহ! তাকে দোযখ থেকে মুক্তি দাও।

আবু হুরায়রা (রা) থেকে একই ধরণের হাদীস বর্ণিত হয়েছে। তবে, সেখানে ৩ বারের জায়গায় ৭ বারের কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

আসুন, আমরা আমাদের এই অস্থায়ী জীবনের ব্যস্ততা ও ঝামেলাকে ফাকি দিয়ে জীবনের আসল ঠিকানা জান্নাতে যাওয়ার জন্যে আপ্রাণ চেষ্টা করি। মনে রাখতে হবে, শুধু নিজে নিজেই জান্নাতের যাওয়ার চেষ্টা করলেই জান্নাত পাওয়া যায় না। জান্নাতে অনেক অনেক বড় ও প্রশস্ত। সেখানে অন্যেকও নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলেই নিজের জান্নাতে যাওয়া সহজ হয়ে যাবে, ইনশাল্লাহ।

আল্লাহ পাক যেন আমাকে ও আপনাকে বিনা হিসাবে জান্নাতুল ফেরদাওসে নিয়ে রাসূলুল্লাহ (স) এর সাথে বা পাশে থাকার তৌফিক দেন। আমীন।

Post Your Comment

Thanks for your comment